You are viewing ব্লগ আর্কাইভ

পাঁচ মে: বন্ধুত্ব, রাষ্ট্র ও মানুষ সম্পর্কের পুনর্বিবেচনা

ভনিতা: রাষ্ট্র ও মানুষ ভাবনা

বাংলাদেশে মানুষের রাষ্ট্র ও রাষ্ট্রচিন্তার ভিত্তিগুলো স্পষ্ট না। ফলত, রাষ্ট্র এখানে একটা কাল্পনিক বিভ্রম তৈরী করে। বড় বড় বুদ্ধিজীবীরাও রাষ্ট্রের ক্রিটিক, বা রাষ্ট্র নিয়া অবজেকটিভলি চিন্তা করার দায় এড়িয়ে যান। পার্টিজান আলাপ করেন। হিংস্র পশু ও ইনসানরূপী পশু (beast and unjust men) থিকা আত্মরক্ষার তাগিদেই রাজনৈতিকতার (সম্পর্ক,

সম্পর্ক

আমার বাচ্চাবেলা বিড়ালে ভরা ছিল।

আর নানান রকম পাখি ও পোকামাকড়।

তার মধ্যে ছিল কোয়েল আর কবুতর। ওদের জন্য আলাদা কইরা বানানো ঘর ছিল। নিয়মিত চাল খুঁদ আর বাসি ভাত দিয়া উনাদের খাওয়ানো হইত। এইসবে আম্মাও ছিল আমার সাথে। আম্মা মাঝে মধ্যে ডাহুক আর পানকৌড়ি ধরার আয়োজন করত। সন্ধ্যায় বিশেষ কিছু জাল বসালে রাতে ধরা পড়ত ওরা। আমাদের পুকুর পাড়ে এইসব পাওয়া যেত। তখন,

লোকেন বোসের গদ্য

এই সময়ে নিখোঁজ হইতে ইচ্ছে করে।

দুদিন আগেও এমন সুসময় ছিল না। কেউ ফিরে চাইত না।

 

না তোমার ভ্রুকুটি, না গোয়েন্দা বাহিনী।

 

অথচ এখন পূর্বাভাসের আগেই সবাই সমস্বরে আমারে খুঁজতে থাকবে।

পুলিশ,

টেক্সট, কনসপিরেসি ও রূপকথা

টেক্সট রূপকথা বিশেষ, নিজেরে হারাতে হারাতে যার গল্প এগোয়। কতগুলো ধাধা তৈরী করে, যেন আপনি রূপকথার ভেতরে পইড়া আছেন। আপনি যতই টেক্সটের ভেতরে ঢুকে পড়তে চাইবেন, টেক্সট ততই আপনার থেকে পালাবে, আপনি টেক্সট থিকা দূরে সরে পড়তে থাকবেন। টেক্সট নিয়া এই আলাপ দেরিদা ঘরানায় মশহুর।

কনসেনসাস

অথবা, আপনি সামাজিক হতে পারেন। জল্লাদ।/ কনসেনসাস, রিফাত হাসান, জুলাই ১৫,২০১৫

ফেসবুক খুলে দেওয়ায় আমি কিছুটা হতাশ। এই সময়ে আমরা যা করতে পারতাম, তা হলো, তরুণদেরকে আহ্বান জানানো, আপনারা অনলাইনে যা যা করতে ভালবাসতেন, তা অফলাইনে করতে ভালবাসতে শিখুন। একই সাথে,

অস্বস্তি

শেষমেষ আমরা একটা জাগায় এসে পৌঁছেছি। ফাঁসি চাই থেকে বিচার চাই না- এটি অন্য এক ভ্রমণ বটে। আমরা মূলত কখনোই বিচার চাই নাই, যখন ফাঁসি চেয়েছি তখন ফাঁসিই চেয়েছি, বিচার নয়। সেই অবস্থা থেকে বর্তমান অবস্থায় উত্তরণের মাজেযা হল, আমাদের বোধোদয়, যে, আমাদেরই ইচ্ছেমত এখানে অবিচার প্রতিষ্ঠিত হইছে, ফলত এখানে আর কখনোই বিচার সম্ভব নয়। ফলত আমরা বলছি, মানে, আমাদের বলতে হচ্ছে, বিচার চাই না।